নিজস্ব প্রতিবেদক, এগ্রিকেয়ার২৪.কম: আবারও বন্যার কবলে পড়তে যাচ্ছে সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে সবচেয়ে উঁচু জেলা দিনাজপুর।জেলার বিভিন্ন অঞ্চল দিয়ে অতিবাহিত পুনর্ভবা, আত্রাই ও ইছামতীর পানি বিপদসীমা ছুঁই ছুঁই। কয়েকদিনের টানা বর্ষণ ও উজানের পানিতে বন্যার আশংকা ক্রমেই জোরালো হচ্ছে বলে জানিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড ।

এরই মধ্যে শহরের নতুন পাড়া ও মাঝাডাঙ্গা এলাকার কয়েকটি গ্রাম বন্যার পানিতে প্লাবিত হয়েছে। পানির নিচে তলিয়ে গেছে আমন ধানের বীজতলাসহ শত শত বিঘার ফসলি জমি। এছাড়াও নিম্নাঞ্চলগুলোতে  পানিতে তলিয়ে গেছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্র জানায়, দিনাজপুর শহরকে বেষ্টনকারী পুনর্ভবা নদীর পানির স্তর ৩১.২১মিটারে (বিপদসীমা ৩৩.৫০), আত্রাই নদীর পানির স্তর ৩৯.২২ মিটারে (বিপদসীমা ৩৯.৬৫) ও ইছামতী নদীর পানির স্তর ২৮.৫১ মিটারে (বিপদসীমা ২৯.৯৫) অবস্থান করছে। এরই প্রভাবে জেলার অন্যান্য ছোট নদীগুলোরও পানি বেড়েছে।

এ বিষয়ে দিনাজপুর পানি উন্নয়ন বোর্ডের পানি সার্ভেয়ার মাহাবুব আলম এগ্রিকেয়ার২৪.কম জানান, জেলার প্রধান তিনটি নদীর পানি বিপদসীমার খুবই কাছাকাছি অবস্থান করছে। এভাবে পানি বাড়া অব্যাহত থাকলে কয়েকদিনের মধ্যেই নদীগুলোর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করবে।

উল্লেখ্য এর আগে গত ২০১৭ সালে সমগ্র দিনাজপুর জেলা বন্যার কবলে পড়ে। কারণ হিসেবে ড্রেনেজ ব্যবস্থার বেহাল দশা ও খাল ভরাটকেই দায়ী করেছিল কর্তৃপক্ষ। এরপর ৩বছর পার হলেও চোখে পড়ার মতো কার্যকরী কোনো উদ্দ্যোগ নেওয়া হয় নি।

এলাকাবাসী নৌ প্রতিমন্ত্রী খালেদ মাহমুদ চৌধুরীর সুদৃষ্টি কামনা করে বলেন, আমরা আশা করি অতিদ্রুত নৌ-প্রতিমন্ত্রী মহোদয় বন্যার হাত থেকে দিনাজপুরকে রক্ষা করতে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।

দিনাজপুরে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি, প্রধান তিন নদীর পানি বিপদসীমায় শিরোনামে সংবাদের তথ্য দিনাজপুর থেকে পাঠিয়েছেন আবু সাঈদ রনি।