কুলের টিউব স্পিটল বাগ

ফসলের স্বাস্থ্য ডেস্ক, এগ্রিকেয়ার২৪.কম: কুল বরইয়ে সফলতা পেতে হলে অবশ্যই সঠিক সময়ে সঠিক পদক্ষেপ ও রোগ বালাই দমন করতে হবে। প্রিয় কুল চাষি আজ কুলের টিউব স্পিটল বাগ রোগের লক্ষণ ও দমন কৌশল নিয়ে নিচে বিস্তারিত আলোচনা করা হলো।

সরেজমিন গবেষণা বিভাগ, বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট, বগুড়া এর সূত্র মতে, এ পোকা কুল গাছের মারাত্মক ক্ষতি সাধন করে থাকে এবং ইতিপুর্বে কখনো এ পোকার আক্রমন দেখা যায়নি।

পোকার নিম্ফ গুলো সরু, লম্বা চুন যুক্ত টিউবের মধ্যে অবস্থান করে নিজেকে লুকিয়ে রাখে। নিল্ফগুলো টিউবের মধ্যে তাদের তৈরী ফ্লুয়িডে (ভষঁরফ) নিজেকে লুকিয়ে রাখে এবং টিউবে এদের মাথা নিচে এবং পেট উপরে রাখে। নিল্ফগুলোর পেটে একটি বর্ধিত প্লেট থাকে যা টিউবের খোলা প্রান্তে দরজা হিসাবে কাজ করে এবং টিউবকে বন্ধ করে দেয়।

ক্ষতির প্রকৃতি: পূর্ণ বয়স্ক পোকা এবং নিল্ফ ফুল থেকে রস চুষে খায়। আক্রান্ত ফুল স¤পূর্ণ রুপে শুকিয়ে যায় এবং ফল ধারনের অনুপযোগী হয়। অধিক আক্রান্ত গাছ স¤পূর্ণ রুপে ফল ধারণে ব্যর্থ হয়। এরা মধু রস নিঃসৃত করে যেখানে স্যুটি মোল্ড জন্মে।

ছায়াযুক্ত স্থানে আক্রমন বেশী হয়। সাধারণত কুল গাছে ফুল আসার সময় আক্রমন বেশি হয় এবং টিউবের মধ্যে নিল্ফ দেখা যায়। পরবর্তীতে ফুল ধরা শেষ হলে এরা টিউব ছেড়ে চলে যায় এবং গাছে শুধু খালি টিউব পড়ে থাকে।

দমন কৌশল ও ব্যবস্থাপনা: জমি সবসময় পরিষ্কার রাখতে হবে। ডালপালা ছাঁটাই করতে হবে যাতে ডালপালায় পর্যাপ্ত আলো বাতাস পায়। ছায়াযুক্ত  জায়গায় কুল চাষ না করাই উত্তম।

হাত বা শক্ত লাঠি দিয়ে টিউবগুলো নিল্ফসহ ধ্বংস করতে হবে। যেহেতু ফুল ধরার সময়  এ পোকার আক্রমন দেখা যায় সেজন্যে গাছে ফুল আসার সময়ে কান্ড বা শাখায় টিউব দেখামাত্র সাইপারমেথ্রিন বা ফেনভালারেট  জাতীয় কীটনাশক  প্রতি লিটার পানিতে ১ মি:লি: হারে মিশিয়ে স্প্রে করতে হবে।

আরও পড়ুন: কুলের ফল ছিদ্রকারী উইভিল পোকার ক্ষতির ধরণ ও দমনের কৌশল

কুলের টিউব স্পিটল বাগ রোগের লক্ষণ ও দমন কৌশল শিরোনামের সংবাদটির তথ্য পাঠিয়েছেন কৃষিবিদ মোঃ আব্দুল্লাহ-হিল-কাফি আঞ্চলিক কৃষি তথ্য অফিসার, কৃষি তথ্য সার্ভিস, রাজশাহী।