বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২:০৪
Home > নগর কৃষি > ছাদ বাগান বিরোধী কার্যক্রম বনাম ছাদ বাগানের গুরুত্ব
2097_ACS_1627_19-Poultry_Dairy-Ad
ছাদ বাগান বিরোধী কার্যক্রম

ছাদ বাগান বিরোধী কার্যক্রম বনাম ছাদ বাগানের গুরুত্ব

মুহাম্মদ শাহাদৎ হোসাইন সিদ্দিকী, কৃষি প্রতিবেদক, এগ্রিকেয়ার২৪.কম: কৃষিবিদ মুহাম্মদ শাহাদৎ হোসাইনপ্রিয় পাঠক আজ ছাদ বাগান বিরোধী কার্যক্রম বনাম ছাদ বাগানের গুরুত্ব নিয়ে অভিজ্ঞতার আলোকে নিজস্ব মত তুলে ধরছি।

বেশ কিছুদিন যাবৎ ছাদ বাগান (Rooftop gardening) বিরোধী বিভিন্ন কার্যক্রম লক্ষ্য করা যাচ্ছে। কয়েক মাস পূর্বে একজন বিশিষ্ট ব্যক্তি ফেসবুকে খোলাখুলি ছাদ বাগান বিরোধী পোস্ট দিয়েছিলো। যা পরবর্তীতে একটি পত্রিকায় ছাপা হয়েছিলো।

কিন্তু ছাদ বাগানীদের তোপের মুখে সেটা বেশীদূর এগুতে পারেনি। এরপর ডেংগু রোগের সূত্র ধরে একটি গোষ্ঠী ছাদ বাগান ধ্বংসযজ্ঞে মেতে উঠে। বহুবাগানীদের সপ্ন ভেঙ্গে চূরমাড় করে দেয়। ক্ষতিগ্রস্ত বাগানী বন্ধুদের বুকফাঁটা কান্নায় পৃথিবী বিষাদময় হয়ে গিয়েছিলো।

তখনও ছাদ বাগানীদের তোপের মুখে বিরোধী গোষ্ঠী পিছু হঠতে বাধ্য হয়। ইদানিং বিভিন্ন স্থানে ফ্ল্যাট বাসার কমিটি এবং ফ্ল্যাট মালিকদের দ্বারা ছাদ বাগান ধ্বংসের পায়তারা করা হচ্ছে। অর্থাৎ একটির পর একটি বিরোধী চক্র ছাদ বাগান ধ্বংসের পায়তারা করছে।

এখানে বেশ কিছু বিষয় স্পষ্ট হয়ে উঠেছে…

১। কৃষি তথা ছাদ বাগান বিষয়ে অনভিজ্ঞ ব্যাক্তিবর্গ এসব কার্যক্রমের সাথে জড়িত



২। নিজস্ব স্বার্থের কারণে বিরোধী কার্যক্রমের সাথে জড়িতে হচ্ছে। ৩। অধিকতর চিন্তা ভাবনা না করে অন্যের কথায় কান দিয়ে বিরোধী কার্যক্রমের সাথে জড়িতে হচ্ছে।

৪। নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকার জন্য ছাদ বাগান ধ্বংস কার্যকমে উৎসাহ যোগাচ্ছে। ৫। আরও অনেক ধরণের কারণ রয়েছে।

ছাদ বাগানের গুরুত্ব: ১। দেশের আয়তনের তুলনায় জনসংখ্যার ঘনত্ব অনেক বেশি। এজন্য বসতবাড়ী তৈরি, শিল্প-কারখানা, রাস্তাঘাট, নগরায়ন ইত্যাদি কারণে বনভূমি প্রায় ধ্বংসের দ্বারপ্রান্তে। বনবিভাগের আওতাধীন মোট বনভূমির পরিমাণ মাত্র ১০%। অথচ একটি দেশে প্রায় ২৫% বনভূমি থাকা প্রয়োজন। বন উজাড়ের দরুন জীববৈচিত্র হুমকির মুখে।

সবুজের পরিমাণ কমে যাওয়ার দরুণ বায়ুমন্ডলে গ্রীন হাউজ গ্যাসের পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। এতে করে ভূ-পৃষ্ঠের তাপমাত্রা বেড়ে যাচ্ছে। ফলে নানারকম অসুবিধার সৃষ্টি হচ্ছে। যেমনঃ প্রখর তাপের প্রভাব, অতিরিক্ত বৃষ্টিপাত, অসমেয়ে বন্যা, ঝড়, হারিকেন, আইলা ইত্যাদি। এক কথায় জলবায়ু পরিবর্তিত হচ্ছে। কৃষিসহ বিভিন্ন খাতে এর ক্ষতিকর প্রভাব পরিলক্ষিত হচ্ছে।

এহেন পরিস্থিতে বাংলাদেশ সরকারের নানামূখী উদ্যোগ যেমনঃ সামাজিক বনায়ন, কৃষি বনায়ন, বসতবাড়ীতে বৃক্ষ রোপণ, রাস্তার ধারে ও প্রতিষ্ঠানসহ বিভিন্ন স্থানে গাছ লাগিয়ে সবুজায়নের পরিধি বৃদ্ধি করা হচ্ছে। এজন্য নানা কার্যক্রম হাতে নেয়া হয়েছে। অনেক রকম আইন-কানুন প্রবর্তন করা হচ্ছে।

২। কিন্তু প্রতিদিন দেশের বুকে নতুন নতুন দালান-কোটা যুক্ত হচ্ছে। যাতে করে কৃষি জমি দ্রুত হারে কমে যাচ্ছে। প্রতিটি বিল্ডিং এর নীচে কৃষি জমি চাপা পড়ে যাচ্ছে। ফলে করে খাদ্য শস্য, সবজি ও ফল-মূলের উৎপাদন কমে যাচ্ছে। যা খাদ্য নিরাপত্তার দিকে ঠেলে দিচ্ছে। বিশেষ কর নগর এলাকায় উৎপাদন না থাকায় পুরোপুরি গ্রাম থেকে আসা খাদ্য দ্রব্যের উপর সম্পূর্ণ নির্ভরশীল থাকতে হয়।

এই সুযোগে অসৎ ব্যবসায়ীরা খাদ্য দ্রব্যে বিষ/ভেজাল মিশিয়ে স্বাস্থ্য ঝুকি বাড়াচ্ছে। যাহোক, আল্লাহ না করুক যদি কোন কারণে গ্রাম থেকে খাদ্য দ্রব্য না আসে তবে অবস্থা খুবই করুন হয়ে দাঁড়াবে। অর্থাৎ শহরে খাদ্য নিরাপত্তা নেই বললেই চলে।

এমতাবস্থায়, একেকটি বিল্ডিং একেকটি কৃষি জমিতে রুপান্তরিত হতে পারে। ফলশ্রুতিতে নগরের উৎপাদন বেড়ে যাবে, যা খাদ্য নিরাপত্তার ঝুকি কমাবে।

৩। এসব বিবেচনায় প্রতিটি বিল্ডিং এর ছাদে বাগান বা সবুজায়ন করা অত্যন্ত সময়োপযোগী পদক্ষেপ। যদিও সরকারী-বেসরকারীভাবে কিছু উদাহরণ ছাড়া চোখে পড়ার মতো তেমন কোন উদ্যোগ লক্ষ্য করা যাচ্ছে না, বাগানী বন্ধুগণ ব্যক্তিগতভাবে ছাদ বাগান স্থাপন করছে। এটা খুবই পজিটিভ একটি বিষয়। এসব বাগানী বন্ধুরা আমাদের পরম বন্ধু।

এদেরকে সহযোগীতা করা আমাদের কর্তব্য। কারণ তারা সবুজের পরিমাণ বাড়িয়ে গ্রীন হাউজ গ্যাস প্রশমনের ব্যবস্থা করছে। এতে যেমন পৃথিবী ঠান্ডা থাকবে, তেমনি নান দুর্যোগের হাত থেকে রক্ষা পাওয়া যাবে।

** এখন সময় এসেছে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর পক্ষ থেকে ছাদ বাগানীদের সাহায্য করার, পাশে দাঁড়ানোর। তিনি যেভাবে একটি বাড়ী একটি খামার করার উদ্যোগ নিয়েছেন, সেভাবে একটি ছাদকেও একটি খামার হিসেবে গড়ে তোলার প্রত্যয় ব্যক্ত করবেন। এটাই আমাদের প্রত্যাশা।

ছাদ বাগান প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে আইন তৈরি করা এখন সময়ের দাবী। আর কেউ যেন, কোন বাগানের গাছ কাটার সাহস না পায়, বাগানের বিরোধীতা করার স্পর্ধ্বা দেখাতে না পারে। এজন্য দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা করতে হবে।

তাই আসুন, আমরা বাগানীদের বিরোধীতা না করে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেই। নিজেরা নিরাপদ থাকি, পরবর্তী প্রজন্মের জন্য নিরাপদ বাসস্থান তৈরি করি।

ছাদ বাগান বিরোধী কার্যক্রম বনাম ছাদ বাগানের গুরুত্ব লেখাটির লেখক: মুহাম্মদ শাহাদৎ হোসাইন সিদ্দিকী, উপজেলা কৃষি অফিসার (এলআর) ও পিএইচডি ফেলো, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়, গাজীপুর।

আরও পড়ুন: বীজ বপন অথবা চারা তৈরির সহজ পদ্ধতি

About এগ্রিকেয়ার২৪.কম

Check Also

খুব সহজ পদ্ধতিতে শিম

খুব সহজ পদ্ধতিতে শিম উৎপাদন প্রযুক্তি

মুহাম্মদ শাহাদৎ হোসাইন সিদ্দিকী, কৃষি প্রতিবেদক, এগ্রিকেয়ার২৪.কম: প্রিয় ছাদ বাগিনীরা আজ খুব সহজ পদ্ধতিতে শিম …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

স্বত্ব © এগ্রিকেয়ার টোয়েন্টিফোর.কম (২০১৭-২০১৯)
সম্পাদক: কৃষিবিদ মো. হামিদুর রহমান। নির্বাহী সম্পাদক: মো. আবু খালিদ।
যোগাযোগ: ২৩/৬ আইওনিক প্রাইম, রোড ২, বনানী, ঢাকা ১২১৩।
Email: agricarenews@gmail.com, Mobile Number: 01831438457, 01717622842