মৎস্য ডেস্ক, এগ্রিকেয়ার২৪.কম: নেত্রকোনার কেন্দুয়ায় প্রায় ২৮১ কেজি নিষিদ্ধ পিরানহা মাছ জব্দ করা হয়েছে। এ সময় ভ্রাম্যমান আদালত অভিযুক্ত চার মাছ বিক্রেতাকে ১৯ হাজার টাকা জরিমানা করা করে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) খবিরুল আহসানের নেতৃত্বে পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত এসব মাছ জব্দ করা হয়।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, রাক্ষুসে স্বভাবের পিরানহা মাছ বাংলাদেশের জলজ পরিবেশের সঙ্গে সংগতিপূর্ণ নয়। অন্য মাছ ও জলজ প্রাণী খেয়ে ফেলে। তা ছাড়া দেশীয় প্রজাতির মাছ তথা জীববৈচিত্র্যের জন্যও এগুলো হুমকিস্বরূপ। এ কারণে সরকার ও মৎস্য অধিদপ্তর এসব রাক্ষুসে মাছের পোনা উৎপাদন, চাষ, বংশ বৃদ্ধিকরণ ও বাজারে ক্রয়-বিক্রয় সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ করেছে।

উপজেলার রামপুরবাজারের মাছের আড়তে অন্য মাছের নামে কৌশলে নিষিদ্ধ রাক্ষুসে স্বভাবের পিরানহা মাছ ক্রয়-বিক্রয় হচ্ছে- গোপন সূত্রে এমন খবর পেয়ে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) খবিরুল আহসানের নেতৃত্বে পরিচালিত ভ্রাম্যমাণ আদালত সোমবার ওই আড়তে অভিযান চালান।

এ সময় আদালত প্রায় ২৮১ কেজি নিষিদ্ধ পিরানহা মাছ জব্দ করেন। সেই সঙ্গে রাক্ষুসে স্বভাবের এসব মাছ বিক্রির দায়ে অভিযুক্ত চারজন মাছ বিক্রেতাকে ১৯ হাজার টাকা জরিমানা করেন। পরে দণ্ডিতরা অর্থদণ্ডের টাকা পরিশোধ করে ছাড়া পান। পরে এসব মাছ কয়েকটি এতিমখানা ও মাদরাসায় বিতরণ করা হয়। এ সময় সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন ও থানা-পুলিশ আদালতকে সহায়তা করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা সাজ্জাদ হোসেন এগ্রিকেয়ার২৪.কমকে জানান, জনস্বার্থে নিষিদ্ধ পিরানহা মাছ ক্রয়-বিক্রির বিরুদ্ধে এ ধরণের অভিযান অব্যাহত থাকবে।

এগ্রিকেয়ার/এমএইচ