মঙ্গলবার, ১২ নভেম্বর ২০১৯, ১০:৩৯
Home > ক্যাম্পাস > মাছ চাষে প্রোবায়োটিক’র গুনগত মান রক্ষায় কাজ করছেন দেশ-বিদেশের বিজ্ঞানীরা
2097_ACS_1627_19-Poultry_Dairy-Ad
মাছ চাষে প্রোবায়োটিক’র গুনগত

মাছ চাষে প্রোবায়োটিক’র গুনগত মান রক্ষায় কাজ করছেন দেশ-বিদেশের বিজ্ঞানীরা

কৃষিবিদ দীন মোহাম্মদ দীনু, বাকৃবি থেকে, এগ্রিকেয়ার২৪.কম: বাংলাদেশের মাছ চাষে প্রোবায়োটিক’র গুনগত মান রক্ষায় কাজ করছেন দেশ-বিদেশের বিজ্ঞানীরা।

মাছ চাষে প্রোবায়োটিক এর প্রয়োগে কী কী সতর্কতা অবলম্বন করতে হবে এ সংক্রান্ত পিডিগ্রী প্রকল্পে কর্মরত বিজ্ঞানীরা গত শুক্রবার (১৭ মে) বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয় আন্তর্জাতিক গেস্ট হাউজে সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময় কালে এ তথ্য তুলে ধরা হয়।



মত বিনিময় অনুষ্ঠানে বলা হয়, বর্তমানে বাংলাদেশ মৎস্য চাষে এক মাইল ফলক স্পর্স করেছে। কিন্তু ক্ষুদ্র মাছ চাষীদের জন্য মাছের যথাযথ স্বাস্থ্য ব্যবস্থাপনা নিশ্চিতকরণ একটি চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় কৃষকরা মাছ চাষে ব্যবহার করছেন বিভিন্ন ধরনের অ্যান্টিবায়োটিক।

কিন্তু অ্যান্টিবায়োটিক মানব শরীরের জন্য ক্ষতিকর হওয়ায় এর বিকল্প হিসেবে কৃষকরা এখন ঝুকেছে প্রোবায়োটিকের দিকে।

গবেষক দলের অন্যতম সদস্য, যুক্তরাজ্যের স্টারলিং বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ড. ফ্রান্সিস মুরে ও  ড. এন্ডিও ডেসবস তার বক্তব্যে বলেন, প্রোবায়োটিক হলো মাছ চাষে ব্যবহৃত এমন কিছু উপকারী ব্যাকটেরিয়া যা অ্যান্টিবায়োটিকের বিকল্প হিসেবে মাছের রোগ প্রতিরোধ করে। কিন্তু এই প্রোবায়োটিকেও রয়েছে ভেজাল ও ক্ষতিকারক উপাদান।

মাছ চাষে প্রোবায়োটিক’র গুনগত মান রক্ষায় কাজ করছেন দেশ-বিদেশের বিজ্ঞানীরা উল্লেখ করে তিনি বলেন, এই ভেজাল প্রোবায়োটিক ব্যবহারে মাছ চাষে বাড়ছে স্বাস্থ্য ঝুঁকির সম্ভাবনা। পরীক্ষা-নিরীক্ষার মাধ্যমে দেশে ভেজাল প্রোবায়োটিক চিহ্নিত করতে গবেষণা করছেন দেশের এবং বিদেশের একদল গবেষক।

মতবিনিময় সভায় উপস্থিত গবেষক দলের সদস্যরা হলেন, যুক্তরাজ্যের স্টারলিং বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ড. ফ্রান্সিস মুরে, ড. এন্ড্রিও ডেসবস, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্বিবিদ্যালয়ের অ্যাকোয়াকালচার বিভাগের অধ্যাপক ড. মুহাম্মদ মাহফুজুল হক, যুক্তরাজ্য ভিত্তিক উন্নয়ন সংস্থা প্রাক্টিকাল এ্যকশন এর গবেষক ড. ফারুক উল ইসলাম এবং ওয়ার্ল্ড ফিশের মুহাম্মদ মিজানুর রহমান এবং বাকৃবি জনসংযোগ ও প্রকাশনা দফতরের উপ পরিচালক কৃষিবিদ দীন মোহাম্মদ দীনু ও বাকৃবি সাংবাদিক সমিতির সদস্যগণ।

যুক্তরাজ্যের বায়োটেকনোলজি এন্ড বায়োলজিকাল সায়েন্স রিসার্চ কাউন্সিলের অর্থায়নে এ প্রজেক্টে কাজ করছেন এ গবেষক দল।



স্টারলিং বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষক ড. ফ্রান্সিস মুরে আরও বলেন, প্রোবায়োটিক অ্যান্টিবায়োটিকের মত ক্ষতিকর না। তবে গবেষণায় দেশের বাজারে প্রাপ্ত প্রোবায়োটিকে ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া এবং রোগ সৃষ্টিকারী জীবানু পাওয়া গেছে।

আরও পড়ুন: বাকৃবিতে মাছের রোগ প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণের ওপর কর্মশালা অনুষ্ঠিত

আর বাংলাদেশে এই ভেজাল প্রোবায়োটিককে চিহ্নিত করার মতো কৃষক পর্যায়ে কোন ব্যবস্থা না থাকায় অনেক ক্ষেত্রেই ক্ষতির সম্মুক্ষিণ হচ্ছে কৃষক। তাই কৃষক পর্যায়ে সঠিক প্রোবায়োটিক চিহ্নত করার উপায় এবং সরকারের একটি নিতীমালা তৈরির বিষয়ে গবেষণা করছি আমরা।

এমনকি প্রকল্পটির অধীনে ভেজাল প্রোবায়োটিক নিরীক্ষণের বিষয়ে দেশের পাচ জন এক্সপার্টকে ট্রেনিং দেবে যুক্তরাজ্যের স্টারলিং বিশ্ববিদ্যালয়।

About এগ্রিকেয়ার২৪.কম

Check Also

আজ থেকে ইলিশ ধরা

আজ থেকে ইলিশ ধরা শুরু

মৎস্য ডেস্ক, এগ্রিকেয়ার২৪.কম: ২২দিন নিষেধাজ্ঞা শেষে আজ থেকে ইলিশ ধরা শুরু হয়েছে। গত ৯ থেকে …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

স্বত্ব © এগ্রিকেয়ার টোয়েন্টিফোর.কম (২০১৭-২০১৯)
সম্পাদক: কৃষিবিদ মো. হামিদুর রহমান। নির্বাহী সম্পাদক: মো. আবু খালিদ।
যোগাযোগ: ২৩/৬ আইওনিক প্রাইম, রোড ২, বনানী, ঢাকা ১২১৩।
Email: agricarenews@gmail.com, Mobile Number: 01831438457, 01717622842