বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ২:৪৮
Home > মৎস্য > টেংরা মাছের কৃত্তিম প্রজনন কৌশল ও নার্সারী ব্যবস্থাপনা
2097_ACS_1627_19-Poultry_Dairy-Ad
টেংরা মাছের নার্সারী পুকুরে

টেংরা মাছের কৃত্তিম প্রজনন কৌশল ও নার্সারী ব্যবস্থাপনা

মৎস্য ডেস্ক, এগ্রিকেয়ার২৪.কম: বিপন্ন প্রজাতির মাছের খাতায় নাম ওঠা টেংরা মাছের কৃত্তিম প্রজনন কৌশল ও নার্সারী ব্যবস্থাপনা নিচে তুলে ধরা হলো।

কৃত্রিম প্রজনন কৌশল: প্রজনন মৌসুমের পূর্বে পরিপক্ক পুরুষ ও স্ত্রী ব্রুডের প্রতিপালন পুকুর থেকে সিস্টার্নে স্থানান্তর করা হয়। পুরুষ ও স্ত্রী মাছকে যথাক্রমে ২:১ অনুপাতে মসৃণ জর্জেট হাপায় স্থানান্তর করা হয়।



সিস্টার্নে অক্সিজেন নিশ্চিত করতে কৃত্রিম ঝর্ণা ব্যবহার করা হয়। স্ত্রী মাছের ক্ষেত্রে কেজি প্রতি ৩০-৪০ মিগ্রা. ও পুরুষের ক্ষেত্রে কেজি প্রতি ১৫-২০ মিগ্রা. হারে পিজি এর দ্রবণ টেংরা মাছের বক্ষ পাখনার নিচে ইনজেকশন হিসেবে প্রয়োগ করা হয়।

হরমোন ইনজেকশন প্রয়োগ করার ৮-৯ ঘন্টা পর স্ত্রী টেংরা ডিম ছাড়ে। ডিম আঠালো অবস্থায় হাপার চারপাশে লেগে যায়। ডিম দেয়ার পর হাপা থেকে ব্রুডগুলো সরিয়ে নিতে হবে।

ডিম ছাড়ার ২০ থেকে ২২ ঘন্টা পর ডিম ফুটে রেণু বের হয়। রেণুর ডিম্বথলি নি:শেষিত হওয়ার পর রেণুকে খাবার দিতে হবে। রেণু পোনাকে সেদ্ধ ডিমের কুসুমের দ্রবণ দিনে ৬ ঘন্টা পর পর ৪ বার দেয়া হয়। হাপাতে রেণু পোনাকে এভাবে ৮-১০ দিন রাখার পর নার্সারী  পুকুরে স্থানান্তরের ব্যবস্থা নেওয়া হয়।

টেংরা মাছের নার্সারী ব্যবস্থাপনা: নার্সারী পুকুর নির্বাচন ও প্রস্তুতি- পোনা প্রতিপালন পুকুরের আয়তন ৪-৮ শতাংশ, গড় গভীরতা ১.০ মিটার রাখা হয়। পুকুর প্রস্তুতির জন্য পুকুর শুকিয়ে প্রতি শতাংশে ১ কেজি চুন দেওয়া হয়।

এরপর শতাংশে ১০০ গ্রাম ইউরিয়া, ৭৫ গ্রাম টিএসপি ও ৬-৮ কেজি গোবর সার ব্যবহার করা হয়। পুকুরের চারপাশে নাইলন নেট দিয়ে ঘিরে দিতে হবে।

পোনা সংগ্রহ ও নার্সারী পুকুরে মজুদ: হ্যাচারিতে উৎপাদিত ৮-১০ দিন বয়সের রেণু পোনা প্রতি শতাংশে ৮,০০০-১২,০০০টি হারে মজুদ করা যায়। নার্সারী পুকুরে মজুদের সময় পোনাকে পুকুরর পানির তাপমাত্রার সঙ্গে ভালভাবে খাপ খাওয়ানোর পর  ছাড়তে হবে।

বাংলাদেশ মৎস্য গবেষণা ইনস্টিটিউট এর পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ইনস্টিটিউট কর্তৃক গবেষণালদ্ধ কৌশল অনুসরণ করলে ব্যক্তি মালিকানাধীন ও সরকারি মৎস্য হ্যাচারিসমূহে টেংরা মাছের পোনা প্রাপ্যতা নিশ্চিত করা সম্ভব হবে।

টেংরা মাছের কৃত্রিম প্রজনন সম্প্রসারণ করা গেলে চাষের মাধ্যমে এতদাঞ্চল তথা দেশে প্রজাতিটির উৎপাদন বৃদ্ধি করা সম্ভব হবে এবং বিপদাপন্ন অবস্থা থেকে এ প্রজাতির উত্তরণ ঘটবে বলে আশা করা যায়।

প্রিয় মাছ চাষি টেংরা মাছের কৃত্তিম প্রজনন কৌশল ও নার্সারী ব্যবস্থাপনা সম্পর্কে আপনাদের কোন প্রশ্ন থাকলে জানাতে পারেন। এসএমএস অথবা ইমেইল করতে পারেন।

আরও পড়ুন: টেংরা মাছের ব্রুড প্রতিপালনের পূর্ণাঙ্গ ব্যবস্থাপনা

About এগ্রিকেয়ার২৪.কম

Check Also

মা ইলিশ সংরক্ষণে মেঘনা

মা ইলিশ সংরক্ষণে মেঘনা নদীতে মোবাইল কোর্ট পরিচালিত

মৎস্য ডেস্ক, এগ্রিকেয়ার২৪.কম: ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুম উপলক্ষে মা ইলিশ সংরক্ষণে মেঘনা নদীতে মোবাইল কোর্ট …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

স্বত্ব © এগ্রিকেয়ার টোয়েন্টিফোর.কম (২০১৭-২০১৯)
সম্পাদক: কৃষিবিদ মো. হামিদুর রহমান। নির্বাহী সম্পাদক: মো. আবু খালিদ।
যোগাযোগ: ২৩/৬ আইওনিক প্রাইম, রোড ২, বনানী, ঢাকা ১২১৩।
Email: agricarenews@gmail.com, Mobile Number: 01831438457, 01717622842